ব্রেকিং:
ফাইজারের আরও ২৫ লাখ টিকা আসছে কাল এসএসসির রুটিন প্রকাশ হতে পারে বিকেলে
  • সোমবার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ১২ ১৪২৮

  • || ১৯ সফর ১৪৪৩

আজকের সাতক্ষীরা
সর্বশেষ:
প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে ২৮ সেপ্টেম্বর টিকা ক্যাম্পেইন প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে তারকাদের নিয়ে বিটিভির বর্ণিল আয়োজন শেখ হাসিনা শিশু পার্কের পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু পদ্মা নদীতে আরেকটি টানেল নির্মাণ করা হবে বাড়তি ৫ বছর শুল্ক্কমুক্ত সুবিধা দিতে পারে চীন

জোয়ারের পানিতে বরগুনার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে বরগুনার নিম্নাঞ্চলের অনেক এলাকা। এতে পানিবন্দি হয়েছে কয়েক হাজার মানুষ।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) থেকে শুরু অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে সদর উপজেলার পশু হাসপাতাল সড়ক, কাঠপট্টি, গৌরিচন্না ইউনিয়নে মহাসড়ক এলাকা, খেজুরতলা আবাসন, ফুলতলা আবাসন, কুমরাখালি গুচ্ছগ্রাম, বড়ইতলা ফেরিঘাট পল্টন, বদরখালী এলাকা, গুলিশাখালী, মাঝেরচর অংশ, আমতলী, বামনা, বেতাগী, নলটোনা, বালিয়াতলী ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

দুপুরে বরগুনা সদরের ২নং গৌড়িচন্না ইউনিয়নের মহাসড়ক এলাকায় সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে কয়েকশত বসতঘর, চলাচলের রাস্তা। স্থানীয় বাসিন্দা নুর-ই-আলম বলেন, সকালে জোয়ারের পানি ড্রেনের মাধ্যমে এলাকায় প্রবেশ করেছে। রাস্তাসহ কয়েকশত বসতঘর তলিয়ে গেছে। 

বদরখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান রাজা বলেন, জোয়ারের পানিতে মাঝেরচরের বেশকিছু গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।  পানিবন্দি হয়ে পড়েছে অন্তত তিন হাজার পরিবার। এছাড়াও পাতাকাটা, ফুলঝুরি, গুলশাখালী অনেকের বসতবাড়ি এবং পুকুরের মাছ ভেসে গেছে।  

বরগুনা শহর উন্নয়ন কমিটির সভাপতি হাসান ঝন্টু বলেন, অপরিকল্পিত বেড়িবাঁধের কারণে এখনও জোয়ারের পানিতে বেড়িবাঁধের বাইরের বাসিন্দারা প্লাবিত হয়। আর বেড়িবাঁধের ভিতরে যারা আছে, তারা প্লাবিত হচ্ছে অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার জন্য। বরগুনা শহরের জনসংখ্যা ও বসতঘর বেড়ে চলছে। এখনই পরিকল্পনা না করলে এক সময়ে এই শহর বসবাসের উপযোগী থাকবে না। 

এ বিষয়ে বরগুনার পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কাইসার আলম বলেন, বিষখালী নদীতে বিপদসীমার ২.৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। বেড়িবাঁধের বাহিরে থাকা কিছু বসতঘরে পানি প্রবেশ করেছে। জোয়ার শেষে পানি নেমে যাবে। এতে ক্ষয়-ক্ষতি হবে না বলেও জানান তিনি।

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা