• রোববার   ০৩ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৯ ১৪২৯

  • || ০৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

আজকের সাতক্ষীরা

উইন্ডিজকে ২৬৫ রানে গুটিয়ে দিয়েও ১১২ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ১৮ জুন ২০২২  

অ্যান্টিগা টেস্টে ইনিংসে ১০৩ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর স্বাগতিকদের ২৬৫ রানে গুটিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। পরে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাট করতে নেমে দিনের খেলা শেষে ২ উইকেটে ৫০ রান তুলেছে সফরকারী বাংলাদেশ।

ফলে দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের চেয়ে এখনও ১১২ রানে এগিয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মেহেদী হাসান মিরাজ ২ ও শান্ত ৮ রান করে অপরাজিত আছেন। সাজঘরে ফিরেছেন ওপেনার তামিম ২২ ও জয় ১৮ রান করে।

অ্যান্টিগা টেস্টের প্রথম ইনিংসে লজ্জার ব্যাটিংয়ের পর গোটা দলের মনোবল ভেঙে যাওয়াটা স্বাভাবিক। তবে উইন্ডিজের পেসাররা যেমন দাপট দেখিয়েছেন, পরে বল করতে নেমে একইরকমভাবে চোখ রাঙিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান, এবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদরা। মেহেদী হাসান মিরাজও কম যাননি। এই অফ স্পিনার ৪টি আর খালেদ এবাদত নেন ২টি করে উইকেট।

শুক্রবার প্রথম সেশনে মাত্র ১ উইকেট হারায় ক্যারিবীয়রা। দ্বিতীয় সেশনে হারায় দুই উইকেট। শেষ সেশনের প্রথম ঘণ্টায় বাকি থাকা ৪ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। প্রথম ইনিংসে উইন্ডিজ থেকে পিছিয়ে থাকলেও ম্যাচে টিকে আছে বাংলাদেশ দল।

৬ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ২৩১ রান নিয়ে চা বিরতিতে যায় উইন্ডিজ। প্রথম ইনিংসে ১২৮ রানের লিডকে আরও বাড়িয়ে নিতে ব্ল্যাকউড ৫৩ এবং আলজারি জোসেফ ০ রানে তৃতীয় ও শেষ সেশনের খেলা শুরু করেন। এই সেশনে সুবিধা করতে পারেননি ব্ল্যাকউড। খালেদের দ্বিতীয় শিকার হন ব্যক্তিগত ৬৩ রানে। তাকে দুর্দান্ত এক ক্যাচে তালুবন্দি করেন মিরাজ। ব্ল্যাকউডের ১৩৯ বলের ইনিংসটি থামে ৯টি চারের মারে।

তার আগেই অবশ্য সাজঘরে ফেরেন জোসেফ। মিরাজের লেংথ ডেলিভারি টার্ন করে যায় আউটসাইড অফের দিকে। বলের লাইন বুঝতে না পেরে আড়াআড়ি ভাবে খেলতে গিয়ে ভুল করেন জোসেফ। বল ব্যাট ছুঁয়ে যায় সোহানের গ্লাভসে। ১৫ বল খেলে কোনো রান করে। মিরাজের এটি তৃতীয় হয়ে ফেরেন। এবাদতের বল রানের খাতা খোলার আগেই আউট হন কেমার রোচ।

ব্যাট হাতে নেমেই মিরাজকে চার মেরে টেস্ট ক্রিকেটে রানের খাতা খোলেন অভিষিক্ত ক্রিকেটার। পরের ওভারে ইবাদতকে আবার দুই চার। তাতে উইন্ডিজের রান আড়াইশ পার হয়, লিড হয় দেড়শ। শেষ ব্যাটসম্যান জেইডেন সিলেসকে মিরাজ নিজের চতুর্থ শিকার বানালে ২৬৫ রানে গুটিয়ে উইন্ডিজ। প্রথম ইনিংসে ১৬২ রানের লিডে পায়। গুদাকেশ অপরাজিত থাকেন ২১ বলে ২৩ রানে।

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা