• শুক্রবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৮

  • || ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আজকের সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরার কৃষ্ণনগরে বাবা মায়ের পর মেয়ে চেয়ারম্যান

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২১  

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন সাফিয়া পারভীন। এই নিয়ে একই পরিবারের তিন সদস্য ওই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন। প্রথম পিতা কেএম মোশাররফ হোসেন, তারপর মাতা আকলিমা খাতুন লাকি ও এবার নির্বাচিত হলেন মেয়ে সাফিয়া পারভীন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৬ সালের মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন মোশাররফ হোসেন। ২০১৮ সালের ৮ সেপ্টেম্বর রাতে কৃষ্ণনগর বাজারে একটি দোকানে বসে থাকা অবস্থায় সন্ত্রাসীদের হাতে নৃশংসভাবে খুন হন তিনি। পরে ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন নিহত মোশাররফ হোসেনের স্ত্রী আকলিমা খাতুন লাকি। তিনি ছিলেন সাতক্ষীরার নির্বাচিত প্রথম মহিলা ইউপি চেয়ারম্যান। বর্তমানে তিনিই কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন।

এদিকে ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসাবে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ও বর্তমান চেয়ারম্যান আকলিমা খাতুন লাকি’র মেয়ে সাফিয়া পারভীন। নির্বাচনে তিনি ৩৬৩ ভোটের ব্যবধানে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীকে হারিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

এর আগে তফসিল ঘোষণা হওয়ার পর মা ও মেয়ে দু’জনেই মনোনয়ন পত্র জমা দেন। মা আকলিমা খাতুন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে ও মেয়ে সাফিয়া পারভীন জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসাবে। পরে মা তার মেয়েকে সমর্থন দিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।

কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের দায়িত্ব প্রাপ্ত রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবুল কালাম আজাদ বলেন, ভোট গণনা শেষে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী লাঙ্গল প্রতীকে জাপার প্রার্থী সাফিয়া পারভীন ৭ হাজার ২৩৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী (স্বতন্ত্র) জিএম রবিউল্লাহ বাহার ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ৮৭৫ ভোট।

কৃষ্ণনগর ইউপি’র নির্বাচিত চেয়ারম্যান সাফিয়া পারভিন বলেন, আমার প্রায়ত বাবা ও আমার মায়ের দোয়া এবং ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের ভালবাসায় আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। আমি ইউনিয়নবাসীর কাছে কৃতজ্ঞ। আমি অবশ্যই আমার প্রয়াত বাবার স্বপ্ন পূরণে উদ্যোগী হব। একই সঙ্গে কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, কর্মসংস্থান এবং নারী ও শিশুর স্বাস্থ্য ও পুষ্টি উন্নয়নে কাজ করে যাব। আমি সরকারকে আমার কাজের মাধ্যমে সব ধরনের সহায়তা দিতে চাই। তিনি সকলের দোয়া কামনা করেন।

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা