• রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৮

  • || ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

আজকের সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরায় লাঙ্গল প্রার্থী কর্তৃক হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২১  

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষ নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ তার নেতাকর্মীদেও নামে মিথ্যে মামলা দিয়ে পুলিশি হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। রোববার (২১ নভেম্বর) বিকালে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন, কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামের আলহাজ¦ মৃত সমশের আলীর ছেলে ভুক্তভোগী স্বতন্ত্র প্রার্থী জি এম রবিউল্যাহ বাহার।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আগামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি। ইউনিয়নে আমিসহ মোট ৬জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। এলক্ষে প্রতিদিন কাকডাকা ভোর থেকে গভীর রাতপর্যন্ত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোটপ্রার্থনা করছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী সাফিয়া পারভীন মিথ্যে তথ্য দিয়ে পুলিশ কর্মকর্তাকে ভূল বুঝিয়ে আমাকেসহ আমার নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দায়ের করে যাচ্ছেন। এছাড়া তারা দ্বারা প্রভাবিত হয়ে প্রায় প্রতিদিনই আমার কর্মী সমর্থকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুলিশ হয়রানি করছে। সম্প্রতি সাফিয়া পারভীন একটি সাজানো ঘটনায় ১৯ জনকে আসামী করে একটি মিথ্যো মামলা দায়ের করেন। মামলায় আমাকেও আসামী করেছিলেন। যদিও বিজ্ঞ আদালত আমাদের জামিন প্রদান করেছেন। এছাড়া এই মামলায় ৭জন অসহায় নিরিহ মানুষকে আটক করা হয়েছে। এমনকি প্রতিনিয়ত তার কর্মী-সমর্থকরা আমার নির্বাচনী ব্যানার ও পোষ্টার ছিড়ে ফেলছেন।

এম রবিউল্যাহ বাহার আরো বলেন, কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের ৬ প্রার্থীর মধ্যে ৫ জন প্রার্থী অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের পক্ষে রয়েছেন। কিন্তু লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী সাফিয়া পারভীন আমার কর্মী সমর্থকসহ ইউনিয়নের অসহায় নিরিহ মানুষের উপর হামলাসহ মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানি করে জনমনে ত্রাস সৃষ্টি করে যাচ্ছেন। সাফিয়া পারভীন প্রশাসনকে ব্যবহার করে ইউনিয়নের মানুষকে জিম্মি করে ভোটে বিজয়ী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। এজন্য তিনি কাউকে গ্রেফতার করিয়ে আবার কাউকে ছাড়িয়ে নিয়েও নিজের ক্ষমতা জাহির করার পায়তারায় লিপ্ত রয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, মিথ্যো মামলা দিয়ে মারপিট করে মানুষের ভোট পাওয়া যায় না। ভোট মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার। এবারের নির্বাচনে মানুষ তার পছেন্দের প্রার্থীকে বেছে নিতে চায়। ভয় দেখিয়ে ভোট আদায় করা যায় না। নির্বাচনে জয় পরাজয় থাকবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইউনিয়নবাসীর প্রত্যাশা একটি অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন। তিনি একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করার দাবি জানান।

তিনি এ সময় সাফিয়া পরভীনের অপতৎপরতা বন্ধসহ ইউনিয়নের শান্তি শৃংঙ্খলা ফিরিয়ে এনে অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষা নির্বাচনের দাবিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা