• রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

আজকের সাতক্ষীরা

ফেনীতে দিনভর রাসেল ভাইপার আতঙ্ক, পরিশেষে গুজব

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ২১ জুন ২০২৪  

ফেনীতে দিনভর রাসেল ভাইপার সাপ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। শেষে জানা গেছে নিছক গুজব।

অন্য জেলার ভিডিও ফুটেজ ফেনীর বলে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গুজবটি ছড়ান।
সূত্রে জানা গেছে, শরীয়তপুর জেলায় রাসেল ভাইপার সাপ পাওয়ার ঘটনাকে ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার পাঠান নগর ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের ঘটনা বলে বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল থেকে কয়েকটি ফেসবুক আইডি ও পেজে গুজব ছড়ানো হয়।  

এতে ওই এলাকাসহ পুরো ফেনীজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সোনাপুর গ্রামে রাসেল ভাইপার পাওয়ার তথ্য সঠিক নয়। স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বললে তারা বলে এটা গুজব। অন্য জায়গার ঘটনা ফেনীর বলে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এনামুল হক নামে একজন ফেসবুক কমেন্টে লেখেন, আমরা বাঙালিরা কিছু পারি আর না পারি, ফেসবুক যেহেতু তাহলে লিখতে সমস্যা কোথায়, সত্য-মিথ্যা যাচাই করি না।

এ বি কামরুল লেখেন, সত্যতা ছাড়া ভুয়া নিউজে আমরা আতঙ্কিত নই। এসব আতঙ্ক কৃষি শ্রমিকদের দাম বাড়িয়ে দেয়, কাজের লোক পাওয়া যায় না। আমরা যারা গ্রামে থাকি, কৃষি নির্ভর পরিবার, আমরা হবো এ আতঙ্কের চরম ভুক্তভোগী।

মজিবুল হক নামে একজন লেখেন, ফেনী জেলার সব কৃষি-কৃষকরা সাবধান। প্রায় প্রত্যেকটা ধানের জমিতে রাসেল ভাইপার পাওয়া যাচ্ছে। এ সাপ কামড় দেওয়ার ৮০-৯০ মিনিটের মধ্যে অ্যান্টিভেনম না দিলে মৃত্যু নিশ্চিত। ধান কাটার আগের দিন জমিতে ব্লিচিং বা গামবুট ছড়িয়ে দেবেন। আর জমিতে যাওয়ার আগে গামবুট পরে যাবেন। আর রাসেল ভাইপার পাওয়া গেলে রেস্কিউ না করে মেরে ফেলা উত্তম। কারণ এরা একেবারে ৪০ থেকে ৫০টা বাচ্চা প্রসব করে বংশ বিস্তার করে। সবাই আশপাশের কৃষকদের সচেতন করে দেবেন।

জানতে চাইলে পাঠান নগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান রফিকুল হায়দার জুয়েল বলেন, সোনাপুর গ্রামে রাসেল ভাইপার পাওয়ার তথ্য সঠিক নয়। আমি স্থানীয় মেম্বারসহ লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছি, এটা গুজব। অন্য জায়গার ঘটনা ফেনীর বলে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফেনী সামাজিক বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকতা বাবুল ভৌমিক জানান, ছাগলনাইয়া রাসেল ভাইপার পাওয়ার তথ্যটি সঠিক নয়। মূলত এটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব হিসেবে ছড়িয়ে পড়েছে।  

তিনি বলেন, সাপ একটি নিরীহ প্রাণী। জীবন ঝুঁকিতে পড়লেই ছোবল মেরে প্রাণ বাঁচানোর চেষ্টা করে। আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান এ বন কর্মকর্তা।

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা