• বুধবার   ২৫ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১১ ১৪২৭

  • || ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২

আজকের সাতক্ষীরা

করোনা রোগীর সেবায় এবার দেশি রোবট!

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১৭ মে ২০২০  

করোনা রোগীর সেবায় কাজ করবে রোবট। চীনসহ উন্নত দেশগুলো করোনা সংক্রমণ কমাতে হাসপাতালে রোবটের ব্যবহার করলেও বাংলাদেশে এটি একেবারে নতুন। আর এই কাজটি হচ্ছে দেশি রোবট দিয়েই। এমন একটি মেডিকার্ট রোবট উদ্ভাবন করেছেন দেশের তরুণ প্রকৌশলীরা।

‘ডাব্লিউআরএমসি-৪০০ এপি-২০২০’ মডেলের মেডিকার্ট রোবট ডিভাইসটি ওয়ালটনের তরুণ প্রকৌশলীরা নিজস্ব ডিজাইনে ডেভেলপ করেছেন। এটি আরএফ ফ্রিকোয়েন্সি নিয়ন্ত্রিত একটি অটোমেটিক রোবট, যা ৪০০ মিটার বা এক হাজার ৩০০ ফুট ব্যাস এলাকায় বিচরণ করতে পারে এবং স্বয়ংক্রিভাবে খাদ্য, ওষুধ, চিকিৎসা কিংবা অন্যান্য সরঞ্জাম পরিবহন করতে পারে। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি চালিত এ রোবট একবার পূর্ণ চার্জে ছয় ঘণ্টা চলতে পারে।  

সংশ্লিষ্টরা জানান, ওয়ালটনের তৈরি মেডিকার্ট রোবট এবং জীবাণুনাশক রিমোট কন্ট্রোল ইউভি-সি সিস্টেম করোনা মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশে তৈরি এই গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসা সরঞ্জাম বিদেশে রপ্তানিরও সুযোগ রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য এই চিকিৎসা সরঞ্জামগুলো উন্মোচন করা হয়েছে।

তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ পলক বলেন, বাংলাদেশ এখন শুধু ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহারকারী দেশই নয়, ডিজিটাল পণ্য উৎপাদক ও উদ্ভাবকের দেশ। ইলেকট্রনিক ও প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ওয়ালটন বিশ্বে নিজেদের অবস্থান তৈরি করে নিয়েছে। কভিড-১৯-এর মতো দীর্ঘ মেয়াদি শত্রুর বিরুদ্ধে জয়ী হতে প্রযুক্তি ব্যবহারের কোনো বিকল্প নেই। ওয়ালটন কর্তৃক করোনাভাইরাস মোকাবেলায় জীবন সুরক্ষাকারী ভেন্টিলেটরসহ অন্যান্য ইকুইপমেন্ট ও ডিভাইস তৈরির বিভিন্ন উদ্যোগ দেশের মর্যাদাকে বৈশ্বিক পর্যায়ে অনেকখানি এগিয়ে নিয়ে গেছে।

সূত্র জানায়, পরীক্ষামূলক পর্যবেক্ষণের জন্য ওয়ালটনের তৈরি মেডিক্যাল ডিভাইস স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে জমা দিয়েছে আইসিটি বিভাগ। এই রোবট ব্যবহার করে আইসোলেশনে থাকা করোনাভাইরাস কিংবা অন্যান্য ছোঁয়াচে রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া যাবে। চিকিৎসক তাঁর কক্ষে বা পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে বসেই কম্পিউটার, মোবাইল ফোন বা রিমোটের মাধ্যমে এ রোবট নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। রোগীকে চিকিৎসাসেবা দিতে পারবেন।

জানা গেছে, এই রোবটে বিশেষ ক্যামেরা, মাইক্রোফোন ও স্পিকার সংযুক্ত করা আছে। এর মাধ্যমে চিকিৎসক ও রোগী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পরস্পরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন। চিকিৎসাক্ষেত্র ছাড়াও এই রোবট অফিস-আদালত, শিল্প-কারখানা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, জনসমাগমের স্থান যেমন বিমান কিংবা নৌবন্দর, বাস-রেলস্টেশন, শপিং মল ইত্যাদি ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে।

ওয়ালটনের আরঅ্যান্ডডি প্রকৌশলী আলিম হাসান ফেরদৌস বলেন, ‘জীবাণুনাশক রিমোট কন্ট্রোল ইউভি-সি সিস্টেমের একটি হলো ইউভি (আল্ট্রা ভায়োলেট) ট্রলি, যার মডেল ডাব্লিউইউভি-টি১৫০। এটি ২৫৩.৭ ন্যানোমিটার রশ্মির জীবাণুনাশক, যা ৯৯.৯৯ শতাংশ পর্যন্ত ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে পারে। রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে দূরনিয়ন্ত্রিত এ ইউভি ট্রলি হাসপাতাল, বাসাবাড়ি ও অফিসে ব্যবহার করা যাবে।’

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা