• মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৬ ১৪২৭

  • || ০৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

আজকের সাতক্ষীরা

ডিএসইর সূচক ১৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থানে

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ১৫ ডিসেম্বর ২০২০  

আগের দিনের মতো গতকাল সোমবারও উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এ দিন শেয়ারবাজারের সব সূচক বেড়েছে। এর মধ্য দিয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ স্থানে উঠে এসেছে। গতকাল সূচক বাড়লেও টাকার পরিমাণে লেনদেন এবং বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে।
বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গতকাল প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২০.৫৯ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ১৪৭.০২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এর আগে ২০১৯ সালের ২৭ আগস্ট ডিএসইর সূচক পাঁচ হাজার ১৭৮ পয়েন্টে ওঠে এসেছিল। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১১.৮৮ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ১৪.৪৫ পয়েন্ট এবং সিডিএসইসি ২.৫৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১৯২.৫০ পয়েন্ট, ১৮১৩.২০ এবং ১০৫৬.৪৩ পয়েন্টে। ডিএসইতে গতকাল ৯৭৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ২৪ কোটি পাঁচ লাখ টাকা কম। আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিল এক হাজার তিন কোটি ৩৮ লাখ টাকার।
ডিএসইতে এ দিন ৩৫৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১২২টির বা ৩৪.০৭ শতাংশ শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। দর কমেছে ১৬৬টির বা ৪৬.৩৬ শতাংশের এবং ৭০টি বা ১৯.৫৫ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৯৯.৭৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৭৮৬.৩৩ পয়েন্টে। এ দিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৬৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৯৬টির, কমেছে ১১৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টির দর। গতকাল সিএসইতে ৭৫ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।
আইপিওতে শেয়ার পাবেন আবেদনকারী সবাই : একজন বিনিয়োগকারীকে কোনো কোম্পানির প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) আবেদন করতে হলে সেকেন্ডারি মার্কেটে কমপক্ষে ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে। আর আবেদন করা প্রত্যেক বিনিয়োগকারীই আইপিওতে শেয়ার পাবেন। এ বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ সংক্রান্ত মূল্যায়ন কমিটি। গত রোববার আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে (বিএসইসি) কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সভায় ইলেকট্রনিক্স সাবস্ক্রিপশন সিস্টেম (ইএসএস) হালনাগাদ করা, লট পদ্ধতি বাতিল করে আবেদন ফি নির্ধারণ করা এবং নতুন কোম্পানির লেনদেন চালুর সময় কমিয়ে আনার বিষয়েও নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
সভা শেষে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন বিএসইসি পরিচালক ও গঠিত কমিটির সভাপতি মো: মনসুর রহমান। বিএসইসির এই পরিচালকের সভাপতিত্বে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) তিনজন, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) তিনজন এবং সিডিবিএলের দু’জন প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, শেয়ারবাজারে সেকেন্ডারি মার্কেটে সর্বনিম্ন ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকলে আইপিওতে আবেদন করা যাবে। এ বিষয়টি কমিশনের কাছে প্রস্তাব করবে গঠিত কমিটি। তবে টাকার পরিমাণ কত হবে সেটা চূড়ান্ত করবে কমিশন। এ ছাড়া লটারির প্রথা বাতিল করে স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থায় বিনিয়োগকারীদের বিওতে শেয়ার বরাদ্দ দেয়া হবে। এ দিকে আবেদন করা সব বিনিয়োগকারীকে শেয়ার বরাদ্দ দিতে সবার আগে ইএসএস হালনাগাদ করার কথা ভাবছে কমিটি। সে ক্ষেত্রে ব্রোকারেজ হাউজ ও সিডিবিএলে শেয়ারের লট পদ্ধতির পরিবর্তে নির্ধারিত আবেদন ফি অনুযায়ী তথ্য হালনাগাদ করতে হবে। আর সিডিবিএল ও ব্রোকারেজ হাউজ ছাড়াও ইএসএস সিস্টেমে মার্চেন্ট ব্যাংকের তথ্যও হালনাগাদ করা হবে। আরো জানা গেছে, আইপিও আবেদনের ক্ষেত্রে শেয়ার লট প্রথা বাতিল করে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি নির্ধারণ করা হবে। মোট আবেদনকারী অনুযায়ী শেয়ার বরাদ্দ দিয়ে বাকি টাকা বিও অ্যাকাউন্টে ফেরত দেয়া হবে।
যেমনÑ কোনো কোম্পানি এক কোটি শেয়ার বাজারে ছাড়ল, আবেদন করল ৩০ লাখ। এ ক্ষেত্রে এক কোটি শেয়ার ৩০ লাখ বিনিয়োগকারীর মধ্যে সমানভাবে বণ্টন করা হবে। এ ক্ষেত্রে একজন বিনিয়োগকারী বণ্টন করা শেয়ার পাবেন। ওই শেয়ার অনুযায়ী ব্রোকার হাউজ অথবা মার্চেন্ট ব্যাংক নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা কেটে রেখে বাকিটা বিনিয়োগকারীদের ফেরত দেবে।
আর সাবস্ক্রিপশন চালু হওয়ার পর থেকে লেনদেন চালু পর্যন্ত সময় কমিয়ে নিয়ে আসার বিষয়ে প্রস্তাব করবে কমিটি। বর্তমানে সাবস্ক্রিপশন শুরু হওয়ার পর থেকে লেনদেন চালু হতে ৪৫ দিন সময় লাগে। এ সময় কমিয়ে ৩০ দিন করার বিষয়ে প্রস্তাব করা হবে।

 

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা