• শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১১ ১৪২৭

  • || ০৮ সফর ১৪৪২

আজকের সাতক্ষীরা
১২৭

`একটা উৎসব করতে পারছি না তো কী হয়েছে`

আজকের সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ১৪ এপ্রিল ২০২০  

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকারের তরফ থেকে বাংলা নববর্ষের সকল অনুষ্ঠানে জনসমাগম বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। ঘরে বসে ডিজিটাল পদ্ধতিতে পহেলা বৈশাখ উদযাপনের জন্য বলা হয়েছে।এমন অবস্থায় পহেলা বৈশাখকে ঘিরে প্রতিবছর যে রকম জমজমাট প্রস্তুতি থাকে, এবারে সে চিত্র পুরোপুরি ভিন্ন।

বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। জাতি-ধর্ম-বর্ণ সব ভুলে সবাই যেন মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় দিনটিতে। বর্ণাঢ্য আয়োজনে পালিত হয় বছরের প্রথম দিন। রমনার বটমূলে থাকে ছায়ানটের বর্ষবরণ উৎসব। রঙ-বেরঙের পোশাকে বৈশাখ বরণে ঢল নামে হাজারো তরুণ-তরুণীর। কিন্তু এবারের বৈশাখ একটু ব্যতিক্রম। চিরায়ত বর্ষবরণের দৃশ্য এবার নেই।

কভিড-১৯ যেন কেড়ে নিয়েছে বৈশাখের সবটুকু রঙ। এ দিনটিকে ঘিরে তারকাদের থাকে নানান পরিকল্পনা। কিন্তু করোনাভাইরাস থামিয়ে দিয়েছে সবকিছু। ঘরবন্দি হয়ে আছেন শোবিজের তারকারা। অন্য সবার মতো ঘরে বসেই বছরের প্রথম দিন কাটাবেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম। পহেলা বৈশাখ প্রসঙ্গে মিম বলেন, স্থিতিশীল পরিবেশ থাকলে বছরের প্রথম দিন উদযাপন অন্যরকম হতো। সকালবেলা তৈরি হয়ে বের হতাম। বিভিন্ন জায়গায় অনুষ্ঠান থাকত। এবার খুব সাধারণভাবেই দিনটি কাটবে। আর দশটা দিনের মতোই। পরিবারের সঙ্গে আছি। পহেলা বৈশাখ মানে তো পান্তা ভাত ও ইলিশ। এগুলো বাসাতেই করা হতো। এবারো হয়তো হবে। কখনো আমিও স্পেশাল কিছু রান্না করি, নইলে মা করে। দেখা যাক এবার কী হয়। এ রকম একটা অবস্থা আসবে, তা আমরা কেউই জানতাম না। সবাইকে বলব, আপাতত কয়েকটা দিন বাসায় অবস্থান করুন। একটা উৎসব করতে পারছি না তো কী হয়েছে, সামনে আরো অনেক উৎসব করব! তার আগে আমাদের সুস্থ থাকতে হবে। আর সবাইকে বলব, যার যেমন সামর্থ্য আছে, আশপাশের মানুষদের সাহায্য করুন। দোয়া করি সবাই যেন সুস্থ থাকে। আর এ সমস্যা যেন দ্রুত কেটে যায়।

আজকের সাতক্ষীরা
আজকের সাতক্ষীরা
সাক্ষাৎকার বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর